৪৪) ঢাকা শহরে পূজার মন্ডপ ও হাটের সংখ্যার পরিমাণ

৪৪) ঢাকা শহরে পূজার মন্ডপ ও হাটের সংখ্যার পরিমাণ

ঢাকা শহরে পূজার সময় মণ্ডপ হয় ২০০ স্পটে কিন্তু ঈদের সময় হাট হচ্ছে মাত্র ২০টি লোকেশনে। মন্ত্রী-আমলা ও মিডিয়া প্রায় বলে- হাটের কারণে নাকি যানজট হয়। তাই হাটের সংখ্যা কমিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে ঢাকা শহরের বাইরে। অথচ ঢাকা শহর এমন এক শহর, যেই শহরে ৩৬৫দিনই যানজট লেগে থাকে। হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করেও যানজট কমাতে পারনি সরকার। কিন্তু দোষ পড়লো সেই গরুর হাট নিয়ে। পূজার মণ্ডপের উপর কিন্তু যানজটের দোষ নেই, দোষ নেই রথযাত্রা আর জন্মাষ্ঠমীর মিছিলের উপর দোষ নেই রাজনৈতিক দলগুলোর মিটিং মিছিলের উপরও দোষ শুধু হাট আর কোরবানির উপর। তাই- দুই ঢাকা সিটিতে কমপক্ষে ৫০-৬০টি হাটের ব্যবস্থা করা করা উচিত। জনগণকে স্বাচ্ছন্দে তাদের ঈদ উতসব করতে দেওয়া হোক। হিন্দুরা স্বাচ্ছন্দে ধর্ম পালন করতে পারবে, কিন্তু মুসলমানরা পারবে না এই নীতি থেকে সরকার ও প্রশাসনকে অবশ্যই সরে আসতে হবে।

সার্চ করুন

সর্বশেষ পোস্ট

এই সম্পর্কিত আরো পোস্ট সমূহ



১) সাবধান! গরুর গোশত খাওয়া নিয়ে ভীতি ছড়াচ্ছে ভারত নিয়ন্ত্রিত মিডিয়াগুলো

মুসলমানদের গরুর গোশত খাওয়ার প্রতি হিন্দুদের যারপরনাই বিদ্বেষ। গরু জবাই, গরুর গোশত রাখা ও খাওয়া এসবের প্রতি ভীতি ছড়ানো হিন্দুদের জাতিগত এজেন্ডা। এসব এজেন্ডা জোরপূর্বক

বিস্তারিত পড়ুন

২) পবিত্র কুরবানি নিয়ে কোন প্রকার ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবেনা

প্রতি বছর পবিত্র কুরবানির সময় শুরু হয় নানা ধরণের ষড়যন্ত্র। ইতিপূর্বে পবিত্র কুরবানির আগে গরুর মধ্যে ‘এ্যানথ্রাক্স’ ভাইরাসের নামে এক ধরণের ফোবিয়া (কুরবানির পশু ভীতি)

বিস্তারিত পড়ুন

৩) পবিত্র কুরবানি ‘ব্যবস্থাপনা’র নামে ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের চেষ্টা করলে দেশে গণবিস্ফোরণ ঘটতে পারে

বাংলাদেশে গরু জবাই নিয়ে বিশেষ করে পবিত্র কুরবানি ঈদের সময় ষড়যন্ত্র নতুন কোনো বিষয় না। ষড়যন্ত্র বিগত বছরগুলোতে পবিত্র কুরবানি নিয়ে সমস্যা সৃষ্টি করতে কুচক্রী

বিস্তারিত পড়ুন

৪) যে পবিত্র কুরবানির উসীলায় চাঙ্গা হয়ে উঠে গোটা দেশের অর্থনিতি

এক কুরবানির ঈদের বরকতে চাঙ্গা হয়ে উঠে গোটা দেশের অর্থনিতি। হবে না কেন? এর সাথে জড়িত রয়েছে হাজার হাজার ব্যবসা আর হাজার হাজার টাকার লেনদেন।

বিস্তারিত পড়ুন